স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাসের ইসলামিক নিয়ম

স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাসের ইসলামিক নিয়ম

বলা বাহুল্য, আল্লাহর ইচ্ছা অনুসারে মানব জাতির প্রচার এবং বিবাহ ও পারিবারিক জীবন যাপনের লক্ষ্যে স্বামী-স্ত্রীকে বিবাহিত হয়ে একটি শান্তিপূর্ণ, নির্জন ও সুশৃঙ্খল পরিবেশ তৈরি করতে হবে এবং এ উভয়ের জন্যই স্বামী এবং স্ত্রীকে তাদের দায়িত্বগুলি যথাযথভাবে পালন করতে হবে। সহবাসের স্বাভাবিক কোর্সটি হ'ল স্বামী শীর্ষে থাকবে এবং স্ত্রী নীচে থাকবে। এই প্রাকৃতিক পদ্ধতির প্রতিটি প্রাণীর ক্ষেত্রেও পালন করা হয়। সব মিলিয়ে কুরআনেও এটি খুব সূক্ষ্মভাবে নির্দেশিত হয়েছে। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।

স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।

এবং স্বামী স্ত্রীর শীর্ষে থাকলে স্ত্রীর দেহটি স্বামীর দেহ দ্বারা ঢেকে যাবে। স্ত্রীর ভোগান্তি পোহাতে হয় না এবং এটি গর্ভাবস্থার জন্যও দরকারী এবং সহায়ক। অতএব, যখন একটি স্বামী এবং স্ত্রীর মিলন হয়, তখন কিছু নিয়ম মেনে চলতে হয়। তাহলে চলুন কিছু বিশেষ নিয়ম জেনে নেই। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে

আরো জানুনঃ শারীরিক চাহিদা কিসের উপর নির্ভর করে?

নিয়ত খালেস করে নেয়া। স্ত্রীর সাথে সহবাস।

নিয়ত খালেস করে নেয়া। অর্থাৎ কাজের মাধ্যমে নিজেকে নিষিদ্ধ পথ থেকে দূরে রাখা, মুসলিম উম্মাহর সংখ্যা বৃদ্ধি করা এবং থাওয়াব অর্জন করা। এ সম্পর্কে আবু জার রাযি থেকে বর্ণিত একটি হাদীসে বর্ণিত হয়েছে, (স্ত্রী সহবাস ও এক ধরনের সদকা। তারা বললেন ইয়া রাসূলাল্লাহ কেউ যদি তার স্ত্রীর সাথে সহবাস করে তাহলেও কি সে সওয়াব পাবে? তিনি বললেন তোমাদের কি মনে হয় যদি সে কামাচার হারাম পথে করে তাহলে কি তার গুনাহ হবে না। অনুরূপভাবে যদি সে কামাচার হালাল পথে করে তবে সে সওয়াব পাবে।) (মুসলিম  2011)

সহবাসের সময় চুম্বন,আলিঙ্গন, মর্দন ইত্যাদি করা

স্ত্রী সহবাসের সময় আলিঙ্গন, মর্দন এবং চুম্বন করতে হয়। এক হাদীসে এসেছে যে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাঁর স্ত্রীদের সঙ্গে আলিঙ্গন,চুম্বন   ইত্যাদি করতেন। তাই আমাদের প্রত্যেকেরই রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু সাল্লাম কে অনুসরণ করা উচিত। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।

আরো জানুনঃ বাসর রাতে শারীরিক মিলন করা কি ঠিক?

সহবাসের শুরু করার সময় দোয়া পড়া

আমাদের সবারই সহবাসের সময় দোয়া পড়ে নেওয়া উচিত। সহবাসের সময় যে দোয়াটি পড়তে হয় সেটি হল


হজরত আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহু আনহু কর্তৃক বর্ণিত আছে যে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, "তোমাদের মধ্যে যখন কেউ তার স্ত্রীর সাথে সহবাসকরতে চায়, তখন সে নামায পড়ি।" যদি কোনও শিশু তাদের কাছে এইভাবে আসে তবে শয়তান সেই সন্তানের ক্ষতি করতে সক্ষম হবে না। (বুখারী, মুসলিম, মিশকাত)। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।

স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।

হজরত আলী রাদিয়াল্লাহু আনহু বললেন, যে যে সহবাসের ইচ্ছা করে, তার নিয়ত এমন হয় যেন আমি ব্যভিচার থেকে দূরে থাকি। আমার মন এখানে এবং সেখানে ঘোরাফেরা করবে না এবং ভাল এবং সৎ সন্তান জন্মগ্রহণ করবে। যদি এই অভিপ্রায়টি সহবাস করা হয় তবে তা পুরস্কৃত হবে এবং উত্তম উদ্দেশ্যটি তাত্ক্ষণিকভাবে পূরণ হবে। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।

আরো জানুনঃ মলদ্বার দিয়ে রক্ত পড়া বন্ধ করার উপায়

যেকোনো আসনে স্ত্রী সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।

ইসলামে যে কোন আসনে স্ত্রী সহবাসের অনুমতি রয়েছে। মুজাহিদ রহমতুল্লাহি আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন যে তোমাদের কাছে তোমাদের স্ত্রীগণ হলো ক্ষেতস্বরূপ। অতএব তোমরা যেভাবে ইচ্ছা সেভাবে তোমাদের খেতে গমন করতে পারো । তোমরা যে কোনোভাবে তোমার স্ত্রীদের সাথে সঙ্গম করতে পারো দাঁড়ানো অথবা বসা অবস্থায়, সামনের দিক থেকে অথবা পিছন দিক থেকে , তবে অবশ্যই সেটা স্ত্রীর যোনি পথে হতে হবে।

মলদ্বারে সহবাস হারাম। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। 

মলদ্বারে বা পায়ুপথে সহবাস করা হারাম। আমাদের কখনোই পায়ুপথে বা মলদ্বারে  সহবাস করা উচিত নয়। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন যে ব্যক্তি তার স্ত্রীর পায়ুপথে বা মলদ্বারে সহবাস করে আল্লাহ তাআলা তার দিকে দয়ার দৃষ্টিতে তাকায় না। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।

আরো জানুনঃ হার্ট অ্যাটাকের কারণ

ঋতুবতী অবস্থায় সহবাস হারাম। 

স্ত্রীরা ঋতুবর্তী হলে তাদের সাথে সঙ্গম করা হারাম। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন যে ব্যক্তি তার স্ত্রীর ঋতুবর্তী থাকা অবস্থায় তার সাথে সহবাস করে অথবা কেউ জ্যোতিষী অথবা গণকের কাছে গিয়ে তারা যেটা বলে সেটা বিশ্বাস করে তাহলে সে অবশ্যই মোহাম্মদ সাঃ এর উপর নাযিলকৃত আল্লাহর কিতাবের বিরুদ্ধাচরণ করল। (তিরমিযী ১৩৫ আবূ দাঊদ ৩৯০৪) স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে

দ্বিতীয় বার সহবাস করতে চাইলে ওযু করা মুস্তাহাব

কেউ যদি একবার সহবাস করার পরে পুনরায় দ্বিতীয় বার সহবাস করতে চাই তাহলে অজু করে নেওয়াটা মুস্তাহাব। রাসুলুল্লাহ সাঃ বলেছেন যে তোমরা তোমাদের স্ত্রীদের সাথে প্রথমবার সহবাস করার পর আবার যদি তোমরা দ্বিতীয়বার সহবাস করতে চাও তাহলে সেক্ষেত্রে এই সহবাসের মাঝখানে অজু করে নেবে ।কেননা দ্বিতীয় বার সহবাস অধিক প্রশান্তিদায়ক । তবে তোমরা যদি গোসল করে নাও তাহলে আরো বেশি উত্তম হবে । এছাড়াও সহবাসের আরো অন্যান্য যে নিয়ম গুলো রয়েছে সেগুলো হলো । স্ত্রীর সাথে সহবাস।

  • সহবাস করার জন্য প্রথমে সহবাসের দোয়া পড়ে বিসমিল্লাহ বলে স্ত্রীকে আলিঙ্গন করে সহবাস শুরু করবেন। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • সহবাসের সময়, স্ত্রীর রূপ দেখুন, শরীর স্পর্শ করুন এবং সহবাসের উপকারগুলিতে মনোনিবেশ করুন।
  • সহবাসের সময় আপনার স্ত্রী ছাড়া অন্য কোন সুন্দরী বালিকার রুপের কল্পনা বা অন্য কোনো স্ত্রী রূপে কল্পনা করবেন না। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • সহবাসের সময় শুধু চিন্তা করবেন যে আপনার স্ত্রীর সাথে মিলন কিভাবে সুখের হবে এভাবে প্রত্যেকটা স্ত্রীরও তাই করা উচিত। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • স্ত্রী যদি চান, তবে তিনি তাকে প্রেম এবং ক্রেস্ট দেবেন। চুমু দেবে তখন উভয়ের মনের পূর্ণ আশা মিলিত হবে। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • মধ্যরাতের আগে সহবাস  করবেন না। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • কোনও ফলের গাছের নীচে সহবাস  করবেন না। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • দূরে কোথাও ভ্রমণের আগের রাতে স্ত্রীর সাথে সহবাস করবেন না। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • পূর্ব-পশ্চিম দিকে শুয়ে কখনও স্ত্রী সহবাস করবেন না। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • স্বপ্নদোষ হলে গোসল না করে স্ত্রী সহবাস করা উচিত নয়। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • কখনোই উল্টাভাবে স্ত্রীর সাথে সহবাস করা উচিত নয়। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • সকালে যখন সূর্য ওঠে তখন এবং দুপুরে যখন সূর্য ঠিক মাথার উপরে থাকে এবং সন্ধ্যায় যখন সূর্য ডোবে তখন স্ত্রী সহবাস করা উচিত নয়। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • ভরা পেটে কখনোই স্ত্রী সহবাস করা উচিত নয়। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • বুধবার রাতে কখনোই স্ত্রী সহবাস করবেন না। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • স্ত্রীর হায়েজ-নেফাসের সময় বা দুজনেই যখন অসুস্থ থাকবেন তখন সহবাস করবেন না।
  • রবিবার রাতে স্ত্রী সহবাস করবেন না। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • সহবাস করার সময় স্ত্রীর সাথে বেশি কথা বলবেন না। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।
  • শরীর নাপাক থাকলে স্ত্রী সহবাস করবেন না। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।

আমাদের শেষ কথা । স্ত্রীর সাথে সহবাস।

প্রিয় বন্ধুরা আপনারা আজকে আমার এ পোস্টটি পড়ে জানতে পারলেন যে কিভাবে ইসলামী শরীয়তে স্ত্রীর সাথে সহবাস করতে হয়। আপনারা সহবাসের আরো বিভিন্ন নিয়ম কানুন জানতে পারলেন । স্ত্রী সহবাসের সময় স্ত্রীর গোপনাঙ্গে দিকে তাকানো জায়েজ আছে। অনেকে বলেন যে স্ত্রীর গোপনাঙ্গে দিকে তাকালে চোখের জ্যোতি কমে যায় এ কথা একেবারেই ভিত্তিহীন । কারণ স্বামী স্ত্রীর জন্য জায়েয আছে একে অপরের দেহের দিকে তাকানো এমনকি যৌনাঙ্গের দিকেও। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস। স্ত্রীর সাথে সহবাস।